গাইড লাইনঃ ঘরে বসেই ওয়েব ডেভলপমেন্ট শিখুন।

বাতাসের সাথে সাথে মনে হচ্ছে হাজার হাজার ডাটা (তথ্য) চারপাশে ভাসছে। Google কে চিনিনা এমন মানুষ কম আছে। যে একে সঠিক ভাবে ব্যবহার করতে পেরেছে যে জানে এটা কি জিনিস। তো যারা Google কে সঠিক ভাবে ব্যবহার করতে পারেন নাই তাদের জন্য সহজ করে গাইড লাইন দিলাম। যা থেকে যেকেউ খুব সহজে ঘরে বসে বসেই ওয়েব ডেভলপমেন্ট শিখতে পারবে।

তবে গাইড লাইনের আগে বলে নেই। অবশ্যই আপনাকে ধৈর্য সহকারে সব টিউটোরিয়াল পড়তে হবে। শুধু পরলে হবে না পড়ার সাথে সাথে যেগুলো প্র্যাকটিস করতে হবে। প্রথমেই NotePad++ সফটওয়্যারটা ডাউনলোড করে নিন। এটা আপনার প্র্যাকটিস করাতে সুবিধা হবে। যেকোন ধরনের কোড এই সফটওয়্যার এর মাধ্যমে লিখতে পারবেন সাথে আরও অনেক সুবিধা পাবেন। এটার বিস্তারিত তে নাইবা গেলাম কারন এটা সম্পর্কে মোটামুটি সবাই জানে। তো ডাউনলোড করুন – NotePad++

এবার যারা আমার লেখা ওয়েব ডেভলপমেন্ট এর গাইড লাইনটি পড়েন নি তারা একবার পরে আসুন কি কি শিখা প্রয়োজন ওয়েব ডেভলপারের জন্য। কি দেখেছে ??? এবার শিখা শুরুঃ

HTML

নিচের সাইটগুলোতে বেশ ভাল মানের টিউটোরিয়াল আছে। এগুলো থেকে ধারাবাহিক ভাবে শিখা শুরু করতে পারেন। শিখবেন কিভাবে শুধু রিডিং পড়ে পড়ে ? অবশ্যই না। যেই কোডটি পরবেন সেটা সাথে সাথে নোটপ্যাড++ এর মাধ্যমে প্র্যাকটিস করবেন।

HTML Tutorial Web Sites

http://www.w3schools.com/html/default.asp

http://www.tizag.com/htmlT/

http://www.quackit.com/html/

http://www.learn-html-tutorial.com

CSS

CSS দুই ধরনের হয়ে থাকে ১.Internal CSS ২.External CSS এই দুই ধরনের মধ্যে অবশ্যই প্র্যাকটিস করবেন এবং শিখবেন External CSS টা আর Internal টা সম্পর্কে একটু ধারনা নিলেই হবে।

CSS Tutorial Web Sites

http://www.w3schools.com/css/default.asp

http://www.tizag.com/cssT/

http://www.quackit.com/css/

http://www.learn-css-tutorial.com/

JavaScript

জাভাস্ক্রিপ্ট !!! কি খুব কঠিন একটা জিনিস কেমন কেমন জানি লাগে তাই না ? নিচের সাইট গুলো থেকে শুধু বুঝে নিন কোনটার কাজ কি। এতে আপনি আপনার মত করে এডিট করতে পারবেন কোডগুলো। আর পর জাভাস্ক্রিপ্ট এর ফ্রেমওয়ার্ক jquery.com থেকে jQuery এর টিউটোরিয়াল গুলো দেখেন কিভাবে কোন কোড ব্যবহার করতে হয়।  

JavaScript Tutorial Web Sites

http://www.w3schools.com/js/default.asp

http://www.tizag.com/javascriptT/

http://www.learn-javascript-tutorial.com/

http://www.quackit.com/javascript/

PHP

PHP এর পিছনে অনেক সময় দিন। ভাল ভাবে রপ্ত করুন PHP কে। অনেক কাজে দিবে। নিচের সাইট গুলো থেকে PHP শিখুন।

PHP Tutorial Web Sites

http://www.w3schools.com/php/default.asp

http://www.tizag.com/phpT/

http://www.learnphp-tutorial.com/

http://www.quackit.com/php/tutorial/

SQL

ডাটাবেজ কে কন্ট্রোল করার জন্য ও ডায়নামিক সাইট বানানোর জন্য SQL কে ভাল ভাবে শিখুন। এগুলো কিন্তু জাভাস্ক্রিপ্ট এর মত শুধু বুঝলে হবে না। এগুলোকে ভাল ভাবে রপ্ত করতে হবে।

SQL Tutorial Web Sites

http://www.w3schools.com/sql/default.asp

http://www.tizag.com/mysqlTutorial/

http://www.quackit.com/sql/tutorial/

http://www.learn-sql-tutorial.com/

WordPress

ওয়ার্ডপ্রেস কি তা নতুন করে কিছুই বলা লাগবে না। খুবই মজার একটি জিনিস। কম সময়ে কম কষ্টে সাইট বানানো যায় এটা দিয়ে। ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে টেকটিউনস এ অনেক টিউটোরিয়াল আছে এগুলো থেকে শিখতে পারেন। আমার করা ভিডিও টিউটোরিয়াল গুলো দেখতে পারেন – ওয়ার্ডপ্রেস ভিডিও টিউটোরিয়াল

Web Server/ Hosting

Hosting সম্পর্কে ধারনা নেওয়া কোন ব্যাপারই না। যেটা জানতে চান YouTube এ গিয়ে শুধু সার্চ দেন। যেমন আপনি যদি কিভাবে সাব ডোমেইন বানাতে হয় জানতে চান। YouTube এ গিয়ে সার্চ দিন “How to create sub domain” অথবা Cpanel Tutorial লিখে সার্চ দিলেও সিপ্যানেল বা হোস্টিং সম্পর্কিত টিউটরিয়াল পাবেন।

এই তো মোটামুটি শেষ হয়ে গেল গাইড লাইন। তো দেরি কিসে ? এখনই শিখা শুরু করে দিন।

আর কেউ যদি কম সময়ে, সহজে ব্যাক্তিগত ভাবে শিখতে চান বা যে কোন পরামর্শ চান যোগাযোগ করতে পারেন। – ফেসবুক

এসইও (SEO) :: অন-পেজ এসইওঃ ট্যাগ

অন-পেজ এসইওঃ

অন-পেজ এসইও র ক্ষেত্রে সর্ব প্রথম এবং অনেক গুরুত্বপূর্ণ হল টাইটেল ট্যাগ (<title> </title>)। এটা কেন বেশি গুরুত্বপূর্ণ ??? !!!

  • এক জন মানুষ যখন গুগলে সার্চ দেয় কোন কিছু লিখে তখন ওই অক্ষরের টাইটেল সেসব সাইটে আছে সেগুলো প্রদর্শন করে গুগল।
  • এক জন মানুষ যখন গুগলে সার্চ দেয় কোন কিছু লিখে তখন ওই অক্ষরের টাইটেল সেসব সাইটে আছে সেগুলো প্রদর্শন করে গুগল।
  • সার্চ ইঞ্জিন পেজের কনটেন্ট গুলো শৃঙ্খলাবদ্ধ ভাবে বুঝতে পারে।

দেখতে একই ধরনের পেজের মধ্যে পার্থক্য বের করতে সাহায্য করে সার্চ ইঞ্জনকে।

হেডার ও বোল্ড ট্যাগঃ

আমরা কখন একটা শব্দকে বোল্ড করি ? যখন ওই শব্দটা কে ভিজিটরের কাছে বেশি প্রাধান্য দিতে হয় তখন। আর হেডার ট্যাগ ব্যবহার করি একটি বর্ণনা কি বিষয়ে তা সংক্ষেপে বুঝানোর জন্য যাতে ভিজিটর হেডিং লাইন পরে বুঝতে পারে এর নিচে যেই বর্ণনা রয়েছে তা কি বিষয়ে রয়েছে।

অনেকে টাইটেল ট্যাগ ও হেডার ট্যাগের কে একই মনে করতে পারেন। কিন্তু না দুটো আলাদা জিনিস। যেমনঃ এই সম্পূর্ণ পোষ্টের টাইটেল হল “এসইও (SEO) পর্ব – ৩ :: অন-পেজ এসইওঃ ট্যাগ ” এর এই পোষ্টের হেডার হল “হেডার ও বোল্ড ট্যাগ

<h1> through <h6>  হেডার ট্যাগ

হেডার ট্যাগ ব্যবহার করলে ভিজিটরের কাছে বুঝতে সুবিধা হয় সাথে সাথে সার্চ ইঞ্জিনও নির্দিষ্ট করতে পারে আপনার সাইটের লিখাতা কন বিষয়ের উপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এর একটি হেডার ট্যাগের অধীনে ১ বা ২ টি প্যাঁরা লিখা ভাল। অতিরিক্ত না দেওয়াটাই উত্তম।

অন্যান্য ট্যাগ সমুহঃ

আমরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কাজে অনেক ধরনের ট্যাগ ব্যবহার করি। কিন্তু বেসিক এইচটিএমএল  (HTML)  এর যেই ট্যাগ গুলো রয়েছে সার্চ ইঞ্জিন এগুলোকে বুঝে। সার্চ ইঞ্জিন আপনার কোন কনটেন্ট কে বুঝে না বা আপনার কনটেন্ট এর উপর ভিত্তি করে সার্চ এর ফলাফল প্রদর্শন করেনা। সার্চ ইঞ্জিন বুঝে তো শুধু মাত্র ট্যাগ সমূহকে। যেমনঃ

Bold – <strong>tag</strong>

Italic – <em>tag</em>

Underline – <span style=”text-decoration: underline;”>tag</span>

Deletion – <del>tag</del>

Insertion – <ins>tag</ins>

আর টাইটেল ট্যাগ ও হেডার ট্যাগ তো আছেই। এমন ট্যাগ সমুহকে সার্চ ইঞ্জিন প্রাধান্য দিয়ে থাকে।

এসইও(SEO) :: কীওয়ার্ড ও পেজ রেঙ্ক

কীওয়ার্ড একটি সাইটের অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি সম্পদ। যা ব্যবহার করে একটি সাইটকে সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম রেঙ্কে নিয়ে আসা যায়।

আসুন জেনে নেই কীওয়ার্ড এর বিস্তারিতঃ

কীওয়ার্ড গবেষণাঃ

আপনার সাইটকে সার্চ ইঞ্জিনে অপটিমাইজেশনের পূর্বে আপনার সাইটের টার্গেট কি তা নির্বাচন করুন। মানে আপনার সাইটের মূল বিষয়বস্তু কি তা নির্ধারণ করুন। সর্ব প্রথমে ৩/৪ টা কীওয়ার্ড নিয়ে কাজ করা উচিত পরে আস্তে আস্তে বাড়ানো যেতে পারে। প্রথমে সেই কীওয়ার্ড গুলো নিয়ে ভাল ভাবে অপটিমাইজেশন করতে হবে যাতে ওই কীওয়ার্ড গুলোতে সার্চ ইঞ্জিনে রেঙ্ক বাড়ে।Continue reading

এসইও(SEO) কি ???

এসইও(SEO) বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বলতে বুঝায় বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিনে একটি সাইটকে তুলে ধরা সাইটে কি আছে তা সার্চ ইঞ্জিনকে বুঝানো। আমরা যেকোনো কিছু লিখে গুগলে সার্চ দিলে দেখা যাবে অনেক পরিমানে ফলাফল পাওয়া যায় এর মধ্যে প্রথম ২/৩ পেজে যে সাইট গুলো আমরা পাই সেগুলোই আমরা দেখে থাকি। এটাই হল এসইও মানে সাইটে এসইও করলে সার্চ ইঞ্জিন আপনার সাইটকে আগে নিয়ে আসবে আগে থেকলে ভিজিটররা বেশি দেখবে। এটাই মূলত এসইও র কাজ।

Continue reading

টোটাল গ্রাফিক্স ডিজাইন (পর্ব – ৪)

Tutorial গুলো CS-5  দিয়ে করা তাই পড়ার সাথে সাথে CS-5 দিয়ে Practically কাজ করলে আশা করি তাড়াতাড়ি শিখতে পারবেন। এটি একটি ধারাবাহিক Tutorial তাই টোটাল গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে মৌমাছির সাথেই থাকুন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন এর পূর্বের পর্ব গুলো Categories এর Graphics Design থেকে দেখুন।

Topics: Inverse, Border & Expand, Color& Gradient

Continue reading

টোটাল গ্রাফিক্স ডিজাইন (পর্ব – ২)

Tutorial গুলো CS-5  দিয়ে করা তাই পড়ার সাথে সাথে CS-5 দিয়ে Practically কাজ করলে আশা করি তাড়াতাড়ি শিখতে পারবেন। এটি একটি ধারাবাহিক Tutorial তাই টোটাল গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে মৌমাছির সাথেই থাকুন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন এর পূর্বের পর্ব গুলো Categories এর Graphics Design থেকে দেখুন।

Topics: Type Tool & Shape Tool

Continue reading

টোটাল গ্রাফিক্স ডিজাইন (পর্ব – ১)

যারা Photoshop শুধু নাম জানেন এর ব্যাপারে আর কিছুই জানেন না তারা মৌমাছি তে “টোটাল গ্রাফিক্স ডিজাইন” এর tutorial গুলো পড়লে আশা করি নিজেতো কাজ করতে পারবেনই সাথে অন্যকেও শিখাতে পারবেন। এখানে Photoshop এর Latest Version CS-5 এর উপর Tutorial গুলো লেখা হবে। কারণ এটা Photoshop এর সর্বশেষ Version আর এটা অন্য Version থেকে অনেক Easy আর অনেক বেশী সুবিধা সম্পন্ন।

Photoshop হচ্ছে Photo Editing দুনিয়ার রাজা। মোট কথা এর মাধ্যমে Photo Editing এর এমন কিছু নেই যে করা যায় না। এর সুবিধা, দক্ষতা, কর্মের পরিসর বর্ণনা করতে গেলে হয়তো দিন পার হয়ে যাবে। তাই ঐ দিকে কথা না বাড়িয়ে আসুন Class শুরু করি।এর হ্যাঁ Tutorial গুলো পড়ার সাথে সাথে CS-5 দিয়ে Practically কাজ করলে আশা করি তাড়াতাড়ি শিখতে পারবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন এর সবগুলো পর্ব গুলো Categories এর Graphics Design থেকে দেখুন।

Continue reading