এক পলকে ওয়ার্ডপ্রেসের প্রথম দিকের কিছু অজানা কথা।

ওয়ার্ডপ্রেস হল PHP এবং MySQL ভিত্তিক একটি ফ্রি এবং ওপেন সোর্স ব্লগিং টুল ও সিএমএস (content management system)। বর্তমানে খুবই জনপ্রিয় একটি সিএমএস এটি। ওয়ার্ডপ্রেস এর প্রতিষ্ঠাতা Matt Mullenweg ও Mike Little এক সাথে যাত্রা শুরু করে b2/cafelog ব্লগিং সফটওয়্যার এর মাধ্যমে।  ২০০৩ এর ২৭ মে ওয়ার্ডপ্রেস এর প্রথম ভার্শন – 0.70  রিলিজ হয়। তখন থেকেই শুরু হয় ওয়ার্ডপ্রেস এর পথ চলা।

যে ভাবে শুরু হল ওয়ার্ডপ্রেস !!!

২০০৩ এর ২৪ জানুয়ারি Matt একটি পোস্ট লিখেছিল b2 ব্লগিং সফটওয়্যারটি আপডেট করা নিয়ে এবং সেই পোস্টে সর্ব প্রথম মন্তব্য করেন Mike Little. মাইকের মন্তব্যটি দেখুন –

mike

তারপরেই এই দুইজন নিলে শুরু হল ওয়ার্ডপ্রেস এর যাত্রা।

ওয়ার্ডপ্রেস এর শুভ যাত্রা

ওয়ার্ডপ্রেস এর প্রথম ভার্শন রিলিজ হয় 0.70 দিয়ে বর্তমানে ওয়ার্ডপ্রেস এর সর্বশেষ ভার্শন হচ্ছে 3.5.1 এর মধ্যে মোট ৭৮ টি ভার্শন রিলিজ হয়। ওয়ার্ডপ্রেস এর সব গুলো ভার্শন দেখুন – All WordPress Version

আসুন ওয়ার্ডপ্রেস এর ১০ বছরের কিছু ভিজুয়াল ইতিহাস দেখে নেই।

১৮ জুন ২০০৩

এটি ওয়ার্ডপ্রেস এর অফিসিয়াল সাইটের প্রথম ডিজাইন।

2003-June-18

হাস্যকর লাগলেও এটি ছিল ওয়ার্ডপ্রেসের About পেজ। একটু পেজটি পড়ুন অনেক তথ্য জানতে পারবেন।

2003-about

প্রথম দিকে ওয়ার্ডপ্রেস এর Editor প্যানেল দেখতে এমন ছিল –

2003-editor-screenshot

মে ২০০৪

পরবর্তী বছর অফিসিয়াল সাইটে সাইটবার যোগ করা হয়। যেখানে ওয়ার্ডপ্রেস এর ফিচার গুলো দেখানো হয় এবং Donate করার অপশন যোগ করা হয়।

2004-May-6

প্রথম যেই Editor প্যানেল ছিল সেটা তে আরও বেশ কিছু অপশন যোগ করা হয় পরবর্তী বছরে।

2004-editor

মে ২০০৫

পরবর্তী বছর ডিজাইনে তেমন কোন পরিবর্তন আনা হয় নি তবে। নতুন কিছু ফিচার যোগ করা হয়। যেমনঃ রিকোমেন্ড ওয়েব হোস্টিং, থিম শোকেস, এডিটর প্যানেল ইত্যাদি।

2005-screenshots-themes

২০০৫ এর দিকে ওয়ার্ডপ্রেসের এডিটর প্যানেল

2005-editor

ওয়ার্ডপ্রেস এর ১০ জন্মদিন উপলক্ষে ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে অজানা কিছু তথ্য আপনাদের মাঝে শেয়ার করলাম।

ভাল লাগলে ওয়ার্ডপ্রেসপ্রেমীদের সাথে শেয়ার করুন।

নিরাপদ রাখুন আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইট

ইদানিং ওয়ার্ডপ্রেস সাইট গুলো খুব হ্যাক হচ্ছে। কিছু কাজ করলেই কিন্তু আমরা এই ধরনের বিপদ থেকে মুক্তি পেতে পারি। নিচে কিছু টিপস দেওয়া আছে যা করলে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইট হ্যাক হওয়া থেকে খুব সহজেই বাচাতে পারেন। এত কষ্ট করে সাইট তৈরি করবেন অথচ তা হ্যাকাররা নষ্ট করে দিবে ??!! তা হতে পারে না… এখনি এই পোষ্টটি পড়ার সাথে সাথে আপনার সাইটকে সিকিউরিটি দিন। 

সিকিউরিটির ব্যাপারে কথা বলার আগে কিছু উপদেশ বাক্য বলে নেই। অনেক ওয়েব সাইট আছে যেখানে ফ্রি তে প্রিমিয়াম থিম পাওয়া যায়। এই ধরনের ক্র্যাক করা থিম ব্যবহার করবেন না। কারন ক্র্যাক করা থিমের ওয়েব সাইট সহজে হ্যাক করা যায়।

বিস্তারিত জানতে এই পোষ্টটি পড়ুন – ফ্রি তে প্রিমিয়াম ওয়ার্ডপ্রেস থিম ব্যবহার… সাবধান !!!

প্লাগিন ব্যাবহারের আগে প্লাগিনের রিভিউ পড়ে নিন তাহলে বুঝতে পারবেন এই প্লাগিনে কোন সমস্যা আছে কিনা।

উপদেশ বানী শেষ এবার আসি কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস সাইটকে সিকিউর করবেন।

wordpress security

*ইউজারনেম পরিবর্তন


ওয়ার্ডপ্রেস এর এডমিন প্যানেলের ইউজারনেম admin থাকলে টা পরিবর্তন করুন।

*শক্তিশালী পাসওয়ার্ড


ওয়ার্ডপ্রেস এর এডমিন প্যানেলের পাসওয়ার্ড জটিল কোন কিছু ব্যবহার করুন। !,@,#,$,%,&,*,(,),{,{,[,],] ইত্যাদি চিহ্ন ব্যবহার করতে পারেন।

*আপডেট


ওয়ার্ডপ্রেস, থিম, প্লাগিন নিয়মিত আপডেট রাখুন।

*robot.txt ফাইল ব্যবহার


robot.txt ফাইল ব্যবহার করুন। কিভাবে করবেন বিস্তারিত জানতে এই পোষ্টটি পড়ুন –Robots.txt ফাইল তৈরির সঠিক উপায়।

*ইউজার রোল কন্ট্রোল


সাইটের ইউজার যদি একাধিক হয়ে থাকে তবে ইউজারদের রোল নির্ধারণ করে কাকে কি ধরনের পারমিশন তা নির্বাচন করুন। ইউজারদের রোল ও কাজ কন্ট্রোল করতে Adminimize প্লাগিনটি ব্যবহার করতে পারেন।

*ফোল্ডার লুকানো


প্লাগিন ফোল্ডার লুকিয়ে রাখুন। মানে ব্রাউজারে http://yourwebsite.com/wp-content/plugins

 এখানে yourwebsite.com এর জায়গায় আপনার সাইটের নাম লিখুন এবং এন্টার চাপুন দেখুন যদি প্লাগিন ফোল্ডার লুকিয়ে না রাখা হয় তবে আপনি যে যে প্লাগিন ব্যবহার করেছেন তা দেখা যাবে।

plugins visible in wp

সমাধানঃ wp-content/plugins ফোল্ডারে একটি খালি index.html ফাইল আপলোড করুন। অবশ্য এই কাজ robot.txt ফাইলের মাধ্যমেও করা যায়। ঠিক একই ভাবে Theme ফোল্ডার ও Upload ফোল্ডারেও একটি খালি index.html ফাইল আপলোড করুন।

*ডাটাবেস প্রিফিক্স পরিবর্তন


ওয়ার্ডপ্রেস ডাটাবেস এর প্রিফিক্স (database prefix) পরিবর্তন করুন। ওয়ার্ডপ্রেস এর ডিফল্ট প্রিফিক্স wp_ হয়ে থাকে এটা পরিবর্তন করুন।

প্রিফিক্স পরিবর্তন নিয়ে বিস্তারিত পোষ্ট খুব শিগ্রই দেওয়া হবে।

*wp-config.php ফাইল প্রটেক্ট


wp-config.php ফাইলে সাইটের অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য থাকে। তাই এটাকে প্রটেক্ট করা খুব জরুরি।

সমাধানঃ আপনার সার্ভারে .htaccess ফাইলে নিচের কোডটি পেস্ট করে সেভ করুন ব্যাস আর কিছু লাগবে না।

[php]<Files wp-config.php>

order allow,deny

deny from all

</Files>[/php]

# wp-config.php ফাইলে ফাফাইলের পারমিশন (Permissions) পরিবর্তন করে দিন। সাধারনত 644 থাকে সেটাকে 755 করে দিন।

change permission

* .htaccess ফাইল প্রটেক্ট


wp-config.php ফাইলকে প্রটেক্ট করবেন .htaccess ফাইল দিয়ে তাহলে তো .htaccess ফাইলকেও প্রটেক্ট করা জরুরি হয়ে পড়ে।

সমাধানঃ .htaccess ফাইলে নীচের কোডটি পেস্ট করুন ও সেভ করুন।

[php]<Files .htaccess>

order allow,deny

deny from all

</Files>[/php]

*timthumb.php ফাইল আপডেট


প্রতিটি থিমেই timthumb.php ফাইল থাকে। ইদানিং এই ফাইল টি না আপডেট রাখার কারনে অনেক সাইট হ্যাক হয়েছে। তাই timthumb vulnerability scanner প্লাগিনটির মাধ্যমে timthumb.php ফাইলটি আপডেট করে নিন।

*সিকিউরিটি প্লাগিন


সিকিউরিটি প্লাগিন হিসাবে Better wp security টা বেশ ভাল। অনেক সুবিধা সম্পন্ন।

ভাল ওয়ার্ডপ্রেস সম্পর্কে ধারনা নাই যার তারা এই প্লাগিনের সকল অপশন ব্যবহার করবেন না। যেমনঃ প্রিফিক্স পরিবর্তন, ডাইরেক্টরি ফোল্ডার পরিবর্তন ইত্যাদি।

কিছু কিছু থিমে এই প্লাগিনটি ব্যবহার করলে কিছু অপশন অফ হয়ে যেতে পারে যেমন থিমের প্যানেল, ইডিটর ইত্যাদি। তাই অপশন না বুঝে কেউ এটা ব্যবহার করবেন না।

বা কোন সমস্যা হলে আমাকে দায়ী করবেন না।

*ফায়ারওয়াল ব্যবহার


ফায়ারওয়াল ব্যবহার করুন। ফায়ারওয়াল হিসাবে অনেক প্লাগিন পাওয়া যায় রেটিং দেখে ব্যবহার করতে পারেন তবে সবচেয়ে ভাল হয় যদি কাস্টমাইজ ফায়ারওয়াল ব্যবহার করতে পারেন। তবে এই ক্ষেত্রে কোন অভিজ্ঞ কারো সাহায্য ছাড়া কাস্টমাইজ ফায়ারওয়াল সাইটে ব্যবহার করবেন না। 

চেষ্টা করবো খুব শিগ্রই কিভাবে কাস্টমাইজ ফায়ারওয়াল মানে কিভাবে নিজে নিজে সাইটের জন্য ফায়ারওয়াল বানাতে হবে তা বিস্তারিত শেয়ার করার।

বিঃদ্রঃ হয়তো কোন টিপস বাদ পরে যেতে পারে। পরে মনে পরলে অ্যাড করা হবে।

উপরে যে কাজ গুলো করতে বলা হয়েছে তা করলে একটি ওয়ার্ডপ্রেস সাইটকে নিরাপদ হিসাবে ধরা যাবে। তবে এডভান্স হ্যাকারদের হাত থেকে বাচার জন্য আরও অনেক পদক্ষেপ নিতে হয়। চেষ্টা করবো পরবর্তীতে শেয়ার করার জন্য।

ভাল লাগলে নিচে ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিতে ও অন্যের সাথে শেয়ার করতে ভুইলেন না। 

ওয়ার্ডপ্রেস এর জন্য প্রাথমিক ও মূল এসইও (SEO)

এসইও (SEO) পারে আপনার সাইটের কাঙ্ক্ষিত ভিজিটর আনতে ও সাইটের রাঙ্ক বাড়াতে। ওয়ার্ডপ্রেসে তৈরি সাইটের এসইও (SEO) জন্য বেশ কিছু কাজ করতে হয়। এগুলো পর্ব হিসাবে তুলে ধরার চেষ্টা করবো।

এই পর্বে এসইও (SEO) জন্য প্রাথমিক ও মূল যে কাজ গুলো করতে হবে তা আলোচনা করা হলঃ

Continue reading

সম্পূর্ণ ওয়ার্ডপ্রেস বাংলা ভিডিও টিউটোরিয়াল

ফ্রি CMS এর ক্ষেত্রে ওয়ার্ডপ্রেস খুব জনপ্রিয় একটি ওপেন সোর্স CMS.

খুব সহজ এর ব্যবহার প্রক্রিয়া। এখানে সম্পূর্ণ ওয়ার্ডপ্রেস এর ভিডিও টিউটোরিয়াল দেওয়া হল। মত ৫ টি ভাগে সম্পূর্ণ ওয়ার্ডপ্রেস এর টিউটোরিয়ালকে ভাগ করে করা হয়েছে। এটি ওয়ার্ডপ্রেস এর সর্বশেষ ভার্সন ৩.৩ এ করা হয়েছে।

Continue reading