ইদানিং সবাই একটা করে ব্লগ সাইট বানাচ্ছে। নিজের কথা বা মনের ভাব শেয়ার করার জন্য ব্লজ্ঞিং খুব ভাল একটা মাধ্যম হয়ে গেছে। প্রথম কথা হল ব্লগিং আর জন্য ওয়ার্ডপ্রেস প্লাটফর্ম এর উপর আর কিছুই নাই। তো সবাই একটা ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল দিয়েই কোন ভাবে একটা থিম ইন্সটল দিয়েই শুরু করে দেয় ব্লগিং। এত কষ্ট করে লিখতেছেন কার জন্য ??? অবশ্যই ভিজিটরের জন্য তাইনা। তাহলে সাইটটি কে এমন ভাবে বানানো উচিত যাতে ভিজিটর ভিজিট করে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। তো জেনে নিন ব্লগকে ভিজিটর ফ্রেন্ডলি করার জন্য কিছু টিপস।

১. সর্বপ্রথম একটি ভাল মানের সুন্দর ওয়ার্ডপ্রেস থিম ইন্সটল দিন সাইটে।

থিম নির্বাচনের টিপসঃ

১.১ ব্লগিং এর জন্য ২ কলাম থিম বেশি ভাল লাগে। তাই দুই কলামের থিম খোঁজ করুন।

১.২ সাইড বার ডান পাশে দেখে থিম নির্বাচন করুন কারন বেশির ভাগ সাইটের সাইড বার ডানে দেখতে দেখতে বাম পাশে সাইডবার ভিজিটরের কাছে অন্য রকম লাগতে পারে।

১.৩ বিশাল বড় স্লাইড ওয়লা থিম ব্লগিং এর জন্য নির্বাচন না করা ভাল।

১.৪ স্ট্যান্ডার্ড সাইজের থিম পছন্দ করুন।

১.৫ অতিরিক্ত জটিল টাইপের থিম ব্লগের জন্য ব্যবহার করবেন না। এতে থিমকে আপনার মন মত কাস্টমাইজ করতে সমস্যায় পরবেন।

বিঃদ্রঃ অতিরিক্ত জটিল টাইপের থিম বলতে কিছু প্রিমিয়াম থিম দেখবেন একটু ভিন্ন ধর্মী ফ্রেমওয়ার্ক ব্যবহার করে একই অংশের কোড ২/৩ জায়গায় থাকে। এতে আপনার এডিট করতে একটু সমস্যায় পড়তে হবে। 

২. ভাল একটি থিম ব্যাকগ্রাউন্ড দিন। থিম ব্যাকগ্রাউন্ড নির্বাচনের ক্ষেত্রে নিচের টিপস গুলো অবলম্বন করুন।

থিম ব্যাকগ্রাউন্ড নির্বাচনের টিপসঃ

২.১ বেশি উজ্জ্বল রঙের ব্যাকগ্রাউন্ড পরিহার করুন কারন ভিজিটর সাইটের দিকে তাকিয়ে থাকতে বিরক্ত হবে। যত ভাল কন্টেন্ট থাকুক বেশি সময় সে সাইটে থাকবে না।

২.২ এমন ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করতে হবে যাতে ব্যাকগ্রাউন্ড হলে জোরা তালি দেওয়া মনে না হয়।

২.৩ খুব সুন্দর দেখে একটা ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করবেন কারন ব্যাকগ্রাউন্ড এর উপর সাইটের সৌন্দর্য অনেকাংশে নির্ভর করে।

৩. সাইটের ইনার ব্যাকগ্রাউন্ড অবশ্যই সাদা ব্যবহার করবেন এবং ফন্ট কালার কালো ব্যবহার করবেন।

৪. সাইটের প্যারাগ্রাফ কালার ও হেডিং কালার আলাদা রাখবেন। যেমনঃ প্যারাগ্রাফ কালার কালো এবং হেডিং কালার সবুজ বা বেগুনি রঙ দিবেন।

৫. সাইটের লিংক কালার ভিন্ন রাখবেন মানে প্যারাগ্রাফ কালার কালো এবং যে যে শব্দটা লিংক সেগুলো নীল রঙ দিন আর মাউস রাখলে মানে হলওভার কালার একটু ভিন্ন দিবেন। এতে ভিজিটর সহজে বুঝতে পারবে কোনটা লিংক।

৬. ব্লগের পোস্টটি সঠিক ক্যাটাগরিতে রাখুন। ক্যাটাগরির সাথে মিল নেই এমন পোস্ট ক্যাটাগরিতে রাখবেন না।

৭. সাইড বারে অপ্রয়োজনীয় জিনিস রাখবেন না। যেমনঃ রেডিও, ফ্ল্যাশ ঘড়ি, ক্যালেন্ডার, বিভিন্ন অ্যানিমেশন ইত্যাদি।

৮. সাইটে যেসব লিংক করবেন তা সব Open in a new tab এ করবেন তা না হলে ভিজিটর হারাতে পারেন।

৯. সাইটের ছবিতে ক্লিক করলে যাতে ওই পোস্টটি বন্ধ না হয়ে যাতে ছবিটি ওপেন হয় সেই রকম বাবস্থা করবেন যেমনঃ ছবির উপর ক্লিক করলে একটু নতুন ট্যাবে ছবিটি ওপেন হবে বা পপআপ হয়ে ছবিটি আসবে। এমন বাবস্থা করবেন।

১০. ব্লগে যেসব ছবি ব্যবহার করবেন সেগুলর সাইজ যাতে ছোট হয় সেদিকে নজর দিবেন। কারন ছবির সাইজ বড় হলে লোড দিতে অনেক সময় লাগবে। আবার মাঝে মাঝে ছবিটি ব্রেক হয়ে জেতে পারে।

১১. ব্লগের সার্চ বক্সকে শক্তিশালী করুন। অনেক ব্লগ আছে সার্চ দিলে সাইটে সঠিক তথ্য থাকা সত্ত্বেও তথ্য টি খুঁজে বের করতে পারে না।

১২. ব্লগের প্যারাগ্রাফ ফন্ট একটু বড় রাখুন যাতে ভিজিটরের পড়তে সুবিধা হয়। ব্লগ ১৪/১৬ রাখুন ফন্ট সাইজ

১৩. স্টাইলিশ ফন্ট ব্যবহার না করে নরলাম ফন্ট ব্যবহার করুন।

আজকে মোটামুটি এই পর্যন্তই। আবারও নতুন কোন গাইড লাইন নিয়ে খুব শিগ্রই পোস্ট করব… 

Recommended Posts

6 Comments

  1. বস, আপ্নের আগের সবগুলা থিমের চাইতে এই থিম আর এই থিমের কাস্টমাইজেশন আমার খুব ভালা লাগছে। ব্যাকগ্রাউন্ডটা আমার বিশেষ পছন্দের। ব্যাকগ্রাউন্ডের এক চিপায় খালি হাল্কা একটু আউলাইয়া গ্যাছে। এছাড়া এখনকার মৌমাছি আমার হেবভি পছন্দের। ও আরেকটা কথা! এডের ব্যানারগুলা একটু ক্যামন চোখে লাগে।.

    রেটিং ৯.৫/১০

  2. rahat vi amar akta site banata hoba please aktu help korban kivaba kora jai…………01917415576.

  3. বুঝতে পেরেছি রাহাত ভাই, এই পোস্টটি একান্তই আমার জন্য! দারুন উপকারে আসবে। ধন্যবাদ।

  4. very nice post for beginner who want to design a new website.


Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *